মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০২:০২ পূর্বাহ্ন

মালদ্বীপে বাঙালি মার্কেটে অগ্নিকাণ্ড, ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • সর্বশেষ আপডেট : সোমবার, ৯ জানুয়ারি, ২০২৩
  • ৮১ বার পড়া হয়েছে /

মালদ্বীপের রাজধানী মালে সিটির বাঙালি মার্কেট নামে ক্ষ্যত নীলন ফিহারা/পুরাতন মার্কেটে বড় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আজ সোমবার (৯ জানুয়ারি) ভোর ৫.৩০ মিনিটে অগ্নিকাণ্ডের এ ঘটনা ঘটে।মালদ্বীপ পুলিশ সার্ভিস, মালদ্বীপ ন্যাশনাল ডিফেন্স ফোর্স এবং জনসাধারণের যৌথ প্রচেষ্টায় ২ ঘণ্টা পর সকাল ৭.৩০ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণ করা হয়।অগ্নিকাণ্ডে প্রচণ্ড বিস্ফোরণ হয় বলে জানিয়ে আশেপাশে থাকা লোকজন। অগ্নিকাণ্ডের পাশেই ছিল মালে সিটি কাউন্সিলের আবাসস্থলের ব্লক।ঘটনার সাথে সাথে আগুন ছড়িয়ে পড়ে এবং ব্লকটিতে বাংলাদেশি শ্রমিকদের বাসস্থান ছিল বলে জানা গেছে। অগ্নিকাণ্ডে এখনো কোনো হতাহত হাওয়ার খবর পাওয়া যাইনি। ঘটনার পর দ্রুত আবাসস্থলে থাকা প্রবাসীদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়। তবে আবাসস্থলে থাকা প্রবাসী বাংলাদেশিদের আসবাপত্র, কাপর-চোপর, মোবাইলসহ ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।অগ্নিকাণ্ডস্থানে থাকা প্রবাসীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, তাদের রুমে থাকা পাসপোর্ট, টাকা পয়সা, মোবাইলসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সব আগুনে পুড়ে গেছে। কেউ কোনো কিছুই সাথে নিয়ে আসতে পারেনি।কুমিল্লা প্রবাসী মোহাম্মদ রিপন বলেন, আমাদের রুমে ছিল মালদ্বীপের রুপিয়া, ডলার যা অনেকেই দেশে যাবে বলে পাঁচ/ছয় মাস ধরে দেশে টাকা না পাঠিয়ে জমানো টাকা ও কেনাকাটা করে রেখেছিল। যার সবই পুড়ে গেছে।অগ্নিকাণ্ডের পাশে থাকা আবাসস্থল ব্লকে মালে সিটি কাউন্সিলের সমস্ত কর্মচারীকে এখন অস্থায়ী আশ্রয় হিসাবে ইমাদউদ্দিন স্কুল মাঠে নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। আগুন লাগার স্থান ও অস্থায়ী আশ্রয় স্থান পরিদর্শন করেন মালদ্বীপের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফায়সাল নাসিম, মালে সিটি কাউন্সিলর, মালদ্বীপে নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনার রিয়ার এডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদ, মিশনের প্রথম সচিব মো. সোহেল পারভেজ ও কল্যাণ সহকারী জসিম উদ্দীন।অগ্নিকাণ্ডস্থান পরিদর্শনে এসে বাংলাদেশ হাইকমিশনার এস এম আবুল কালাম আজাদ বলেন, আমি মালদ্বীপের ডিফেন্স ফোর্সের প্রধানসহ মন্ত্রণালয় এবং এখানে এসে মালে সিটি কাউন্সিলারের সাথে কথা বলেছি, তারা আমাকে বলেছে সকল বাংলাদেশি নাগরিক নিরাপদে আছেন এবং অস্থায়ী আশ্রয় কেন্দ্র থেকে আজকের মধ্যেই স্থায়ী বাসস্থানের ব্যবস্থা করে দেবেন।মালে সিটি কাউন্সিলরের বরাতে, আবাসস্থল ব্লকে একজন ভারতীয়সহ প্রবাসী বাংলাদেশি ১৬৫ জন কর্মী রয়েছে। তাদের সবাইকে নিরাপদ স্থানে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। আপাতত কাউন্সিলর কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে ত্রাণ সহায়তা দিচ্ছেন। কী কারণে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত মালদ্বীপের ফায়ার সার্ভিসের টিমের কর্মকর্তারা তার অনুসন্ধানে কাজ করছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

আরো পড়ুন

এস এন্ড এফ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

Developer Design Host BD