মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০২:৫৬ পূর্বাহ্ন

আশ্বাসেই আটকে আছে!

মুনিয়া রহমান জান্নাত, গবি প্রতিনিধি
  • সর্বশেষ আপডেট : মঙ্গলবার, ১১ জুন, ২০২৪
  • ২৯ বার পড়া হয়েছে /

প্রতিষ্ঠার ২৫ বছর পেরোলেও সাভারের  গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ( গবি) শিক্ষার্থীদের যাতায়াত ব্যবস্থার জন্য নেই কোনো বাস। যাতায়াতের ভোগান্তি দূর করার জন্য দীর্ঘদিন ধরে আবেদন করে আসলেও দেখা মেলেনি সমাধানের।

এদিকে সম্প্রতি শিক্ষক-কর্মকর্তাদের জন্য সোয়া কোটির অধিক মূল্যের দুটি নতুন শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বাসের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আশোক লেল্যান্ডের ৫২ আসন বিশিষ্ট বাস দুটি গত ৩ জুন ক্যাম্পাসে পৌছানোর পরই  নানা আলোচনা-সমালোচনার জন্ম নেয়।

শিক্ষার্থীদের জন্য বাসের ব্যবস্থা না করায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ ক্যাম্পাস অঙ্গনে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানায় সাধারণ শিক্ষার্থীরা । এর কারণ খুঁজতে গিয়ে জানা যায়, ২০২২ সালের ৩০ অক্টোবর মানিকগঞ্জ ও চন্দ্রা রুটে দুটি বাস চালুর সিদ্ধান্ত নেয় প্রশাসন। এ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে আগ্রহীদের থেকে তথ্য আহ্বান করা হয়।

তবে দীর্ঘদিন বাস চালুর দাবি জানিয়ে আসলেও তখন এ আবেদনে তেমন সাড়া মেলেনি। ফলে আবারক তথ্য চাওয়া হয়। দুবার তথ্য আহ্বান শেষে মানিকগঞ্জ রুটে ৬১ জন, চন্দ্রা রুটে ৫৩ এবং ঢাকা রুটে (সম্ভাব্য) মাত্র ৩২ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেন। এছাড়া আরও ৮ জন শিক্ষক-কর্মকর্তারাও এসব রুটে আবেদন করেন।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র সহকারী রেজিস্ট্রার আবু মুহাম্মদ মুকাম্মেল জানান,  ‘শিক্ষার্থীদের বাসের ব্যাপারে আমরা এখনো ইতিবাচক। ক্যাম্পাস থেকে বাইশমাইলের রাস্তা সংস্কারের কাজ চলায় শিক্ষকদের জন্য আনা বাস দুটি এখনো চালু হয়নি। এটা চালুর পর আগের বাস দুটি পরীক্ষামূলকভাবে শিক্ষার্থীদের জন্য মানিকগঞ্জ ও চন্দ্রা রুটে চালু হবে। শিক্ষার্থীদের আগ্রহ থাকলে পরবর্তী সময়ে ঢাকা রুটেও বাস সেবা চালু হবে।

সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবুল হোসেন বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় সর্বদা শিক্ষার্থীদের সুবিধার কথা চিন্তা করে। তাদের যাতায়াতের ভোগান্তি দূর করতে মানিকগঞ্জ ও চন্দ্রা রুটে দুটি বাস চালুর সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু তদানুরূপ শিক্ষার্থীদের সাড়া পাওয়া যায়নি। শিক্ষার্থীরা আগ্রহী থাকে তাহলে বাস সেবা চালু করবে প্রশাসন। ‘

আরো পড়ুন

এস এন্ড এফ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

Developer Design Host BD