মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০১:০৮ পূর্বাহ্ন

আমতলীতে শত্রুর বিষে মরলো পুকুরের ৭ লক্ষ টাকার মাছ!

ইমরান হোসেন,আমতলী(বরগুনা)
  • সর্বশেষ আপডেট : শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩
  • ৩১২ বার পড়া হয়েছে /


বরগুনার আমতলী উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ রাওঘা গ্রামের শত্রুতা বশতঃ আঃ গনি প্যাদার পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে বিভিন্ন প্রজাতির ৭ লক্ষাধিক টাকার মাছ মেরে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ রাওঘা গ্রামের আব্দুল মজিদ প্যাদার পুত্র আঃ গনি প্যাদার বাড়ির সামনের পুকুরে শত্রতা বশতঃ কে বা কাহারা পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে। শুক্রবার সকাল থেকে পুকুরে মাছ মরতে শুরু করে। প্রথমে পুকুর মালিক গনি প্যাদা ভেবেছিল পানি নষ্ঠ বা অন্য কোন সমস্যার কারণে চাষকৃত মাছ মরে যাচ্ছে। পরবর্তিতে মৃত মাছের পরিমাণ বৃদ্ধি পাওয়ায় সকলের সন্দেহ বাড়তে থাকে। বিকেলে এলাকার লোকজন এসে দেখেন পুকুরে বিষ দেওয়া হয়েছে।

পুকুর আলিক আঃ গনি প্যাদা বলেন, আমার ওই পুকুরে পাচ প্রজাতির মাছ ছিল। বিষ দেওয়ার কারনে সব মাছ মরে গিয়ে ভেসে উঠেছে। আমার সাথে শত্রæতা করে এতোবড় সর্বনাশ কে করলো বুজতে পারতেছিনা। আমি এর বিচার চাই।

গনি প্যাদার জামাতা রিপন বলেন, আমি আর আমার শ্বশুর আঃ গনি প্যাদা মিলে খুলনা থেকে বিভিন্ন প্রজাতির মাছের ডিম কিনে এনেছিলাম। সেগুলো অনেক কষ্ট করে ওই পুকুরে খাবার খাইয়ে বড় করেছি।

পুকুরে বিষ প্রয়োগের ফলে মাছ মরে যাচ্ছে। এতে আমাদের প্রায় সাত লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে। তিনি আরো বলেন, আমি পুকুর থেকে মারা যাওয়া মাছগুলো পরিস্কার করে আমতলী থানায় গিয়ে মামলা করবো।

হলদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান মিন্টু মল্লিক মুঠোফোনে বলেন, পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ মারার বিষয়টি আমি জেনেছি। আমি গনি প্যাদাকে বলে দিয়েছি, সে যদি ওই বিষয়ে আইনগত কোন ব্যবস্থা নিতে চায় তাহলে আমি তাকে সার্বিক সহযোগিতা করবো।

এরকম জঘন্য কাজ যারা করেছে তাদেরকে আইনের আওতায় এনে কঠিন শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মিজানুর রহমান বলেন, এ বিষয় এখনো কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো পড়ুন

এস এন্ড এফ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

Developer Design Host BD