সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০২:২০ অপরাহ্ন

শীতে হিটার ব্যবহার: যেসব বিষয়ে সতর্ক থাকা দরকার

আজকের পোস্ট ডেস্ক
  • সর্বশেষ আপডেট : মঙ্গলবার, ৩ জানুয়ারি, ২০২৩
  • ১০০ বার পড়া হয়েছে / ইপেপার / প্রিন্ট ইপেপার / প্রিন্ট

পৌষের শুরুতে শীতের আমেজ। ক্রমশ কমছে তাপমাত্রার পারদ। উষ্ণতার খোঁজে বাইরে বের হওয়ার সময় শীতপোশাক তো রয়েছেই। ঘরে অনেকেই হিটার ব্যবহার করেন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, হিটার সর্বনাশা। যেকোনও মুহূর্তে বড়সড় বিপদ ডেকে আনতে পারে এই বৈদ্যুতিক যন্ত্র।সম্প্রতি হিটার চালিয়ে ঘুমন্ত অবস্থায় দম্পতির প্রাণহানির মতো ঘটনা ঘটেছে। তাই আজই সাবধান হোন। জেনে নিন হিটার ব্যবহারে শারীরিক ক্ষতি কী হতে পারে। আর ব্যবহারের ক্ষেত্রে কী কী সতর্কতাই বা অবলম্বন করা প্রয়োজন।বিশেষজ্ঞরা বলছেন, হিটার ব্যবহারকারীরা একাধিক শারীরিক সমস্যায় ভোগেন। সেগুলি হলো- শুষ্ক ত্বক, চোখ জ্বালা, কনজাংটিভাইটিস, চোখ চুলকানো, চোখে লালভাব, অ্যালার্জি।শারীরিক সমস্যা থেকে রেহাই পেতে চাইলে হিটার ব্যবহারের ক্ষেত্রে কিছু সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন। নইলে বড়সড় বিপদ হতে পারে।

জেনে নিন ঠিক কী কী সতর্কতা নেওয়া দরকার: 

১. বিছানার কাছে হিটার রাখবেন না।

২. হিটার তোষক, কম্বল, কাগজ থেকে দূরে রাখতে হবে।

৩. কার্পেট, কাঠ অথবা প্লাস্টিকের কোনও জিনিসের উপর হিটার রাখবেন না।

৪. শক্ত, দাহ্য নয় এমন সামগ্রীর উপর হিটার রাখুন।

৫. বাড়িতে পোষ্য কিংবা কচিকাঁচা থাকলে আরও সাবধান হোন। তারা যাতে কোনওভাবে হিটারের কাছাকাছি না যায়, সেদিকে খেয়াল রাখুন।

৬. হিটার একটানা ঘরে চললে কার্বন মনোক্সাইড উৎপাদন হতে পারে। আর তার থেকে প্রাণহানিও অসম্ভব কিছুই নয়। তাই ঘুমোতে যাওয়ার আগে কিংবা বাড়ি থেকে বেরনোর সময় হিটার বন্ধ করতে ভুলবেন না।

৭. হিটার ঘরে চলার সময় কারও মাথা যন্ত্রণা, অস্বস্তি, পেটে ব্যথা, বমি, ক্লান্তিবোধ হলে সাবধান হোন। তড়িঘড়ি হিটার বন্ধ করুন। ঘরের জানলা, দরজা খুলে দিন।

আরো পড়ুন

এস এন্ড এফ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

Developer Design Host BD